TURNER IT SOLUTION

শুক্রবার ১৯ জানুয়ারী ২০১৮ || সময়- ১০:৪৫ am

Warning: include(usbd/config/connect2.php) [function.include]: failed to open stream: No such file or directory in /home/onn24/public_html/details.php on line 82

Warning: include(usbd/config/connect2.php) [function.include]: failed to open stream: No such file or directory in /home/onn24/public_html/details.php on line 82

Warning: include() [function.include]: Failed opening 'usbd/config/connect2.php' for inclusion (include_path='.:/usr/lib/php:/usr/local/lib/php') in /home/onn24/public_html/details.php on line 82

Warning: mysql_num_rows() expects parameter 1 to be resource, boolean given in /home/onn24/public_html/details.php on line 84

বায়োমেট্রিক পদ্ধত্বিতে সিমকার্ড নিবন্ধন করতে টাকা লাগে

  • বায়োমেট্রিক পদ্ধত্বিতে সিমকার্ড নিবন্ধন করতে টাকা লাগে

    বায়োমেট্রিক পদ্ধত্বিতে সিমকার্ড নিবন্ধন করতে টাকা লাগে

ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম নির্দেশ না মেনেই টাকার বিনিময় বায়োমেট্রিক পদ্ধত্বিতে সিমকার্ড নিবন্ধন করা হচ্ছে মাদারীপুর জেলার প্রায় এলাকায়। এমনকি টাকা না দিতে পারলে নিবন্ধন করে দেয়া হয় না।


ডাক ও টেলিযোগাযোগের তথ্য সুত্রে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে মোবাইল সিমকার্ড নিবন্ধন-পুনঃনিবন্ধনে অর্থ নিলে কালো তালিকা করে রিটেইলারশিপ বাতিল করা হবে। মাদারীপুর জেলার বিভিন্ন উপজেলা ও গ্রাম, বাসষ্টান্ডের রিটেইলারদের দোকান সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায় ১০ টাকা থেকে ৫০ টাকা পযন্ত আদায় করে নিচ্ছে বাযোমেট্রিক পদ্ধত্বিতে সিমকার্ড নিবন্ধন করতে। 


আর এই সরকারী আদেশ না মেনেই বিভিন্ন ভাবে টাকা আদায় করে নিচ্ছে, সাথে নানা রকম ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন বিভিন্ন অপারেটরের গ্রাহকরা। তবে কিছু রিটেইলার(দোকানদার) কোন টাকা না নিলেও জামেলা এরাতে অন্য দিকে সময় দিতে না চাওয়ায়, সিমকার্ড নিবন্ধন করতে আগ্রহ প্রকাশ করে না। সবচেয়ে বড় কথা বেশীর ভাগ গ্রাহক , সিমকার্ড নিবন্ধন করতে টাকা লাগে বা লাগে কিনা তাও জানে না।


গত (২৮ জানুয়ারি) সচিবালয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগে অপারেটরদের সঙ্গে বৈঠকের পর তারানা হালিম সাংবাদিকদের বলেন, অপারেটরদের বলা হয়েছে তদন্ত করে ব্যবস্থা নিন। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে অপরাধ সংঘটন এড়াতে গত ১৬ ডিসেম্বর থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে বায়োমেট্রিক তথা আঙুলের ছাপ নিয়ে সিম নিবন্ধন শুরু হয়। অপারেটররা রিটেইলারদের ইনটেনসিভ দিচ্ছেন। কাজেই গ্রাহক পর্যায়ে কোনোরকম ফিস বা বাড়তি টাকা নেওয়ার সুযোগ নেই।’
 

‘তারপরও যেসব রিটেইলাররা বাড়তি অর্থ নিচ্ছে তদন্ত করে সত্যতা পাওয়া গেলে সঙ্গে সঙ্গে তাকে ব্লাকলিস্ট করা হবে এবং তার রিটেইলারশিপ ক্যান্সেল করা হবে। টেলিযোগাযোগ বিভাগ ও বিটিআরসিকে গ্রহন করার নির্দেশনা দেন।’  অপারেটরদের উদ্দেশ্যে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আপনারা দৃষ্টান্ত স্থাপন করুন, যাতে রিটেইলাররা ভয় পায়।


ডাসার থানার পশ্চিম মাইচপাড়া  রুবেল টেলিকমের রিটেইলার জলিল জানান আমি বায়োমেট্রিক পদ্ধত্বিতে সিমকার্ড নিবন্ধন করতে কোন টাকা নেই না। তবে আমার বন্ধুরা আমাকে জানিয়েছে অনেক স্থানে নিবন্ধন করতে টাকা দিতে হয়। তানা হলে নিবন্ধন করে দেয় না। তবে আমার একটা দাবি রিটেইলারদের কমিশনটা যদি একটু বাড়ানো হয়, তাহলে আমার মনে হয় এই সমস্যা থাকবে না।


এদিকে মাদারীপুর সদর থানায় তালতলা এলাকায় ইব্রাহিম টেলিকমে সরেজমিনে গোপন ক্যামেরায় ধরা পরে বায়োমেট্রিক পদ্ধত্বিতে গ্রামিণফোনের সিমকার্ড নিবন্ধন করতে ২০ টাকা নিতে। আর ধরা পরায় সে স্বীকার করে যে আমিতো কারো কাছ থেকে চেয়ে নেই না। তারা খুশি হয়ে দেয়। সে আরও জানায় আমাদের গ্রামিণফোন কোন কমিশন দেয় না। আমি জানি টাকা নেয়া অপরাদ তারপরও আমার সব কাজ ফেলে রেখে গ্রাহকের কাজ করে দেই তাই আমি টাকা নেই। 
 

তালতলা বাজারে বাংলালিংকের অস্থায়ী ভাবে দোকান বসিয়ে বায়োমেট্রিক পদ্ধত্বিতে সিমকার্ড নিবন্ধন করতে টাকা নিতে দেখা যায় তবে আমাদের ক্যামেরা দেখেই টাকা নেয়া বন্ধ করে দেয়। তবে একজনে কাছে টাকা চেয়েছিল সে দেয়নী তবে সে ক্যামেরার সামনে বলে দিলেন যে তারা তার কাছ থেকে টাকা চেয়েছে তার কাছে টাকা ভাংতি ছিল না তাই সে দেয়নী।


এদিকে কুনিয়া বাজারে ও কুনিয়া হাটে সরেজমিনে ঘটনাস্থলে গেলে সাংবাদিকদের আসার খবর পেয়ে দোকান বন্ধ করে চলে যায়। সেখানে নিবন্ধন করতে আসা গ্রামিণ ফোনের এক গ্রাহক জানায় আমি কুনিয়া হাটে সিম রেজিস্টেসন করতে আসছি। আমার কাছে ৩০ টাকা চাইছে। আমি দিতে না চাওয়ায় আমারটা করে দেয় নাই। 


তবে দুদিন পর আবার হাতে নাতে ধরা পরে তারা সিমকার্ড নিবন্ধন করতে টাকা নিচ্ছে। সবচেয়ে বড় কথা হলো যারা রক্ষক তারাই ভক্ষক। গ্রামীন ফোনের এক সেলস এক্সকটিভ মিরাজুল কালকিনির এলাকায় কাজ করে। তার ভাইকে দিয়ে ২০/৩০ টাকার বিনিময় কুনিয়া বাজারে অস্থায়ী দোকান বসিয়ে বায়োমেট্রিক পদ্ধত্বিতে সিমকার্ড নিবন্ধন করে বলে অভিযোগ পাওয়া যায়।


ঘটকচর বাজারে কাজী টেলিকম যেখানে বাংলালিক সার্ভিস পয়েন্ট রয়েছে সেখানে টাকার বিনিময় সিমকার্ড নিবন্ধন করা হয়। এবং সাংবাদিকসহ গ্রাহকদের সাথে খারাব ব্যবহার করে।বাংলালিংকের মাদারীপুরের জোনাল সার্ভিস ম্যানেজার (জেড এস এম) সাংবাদিকদের সামানে কথা বলতে চায়নী। তাই বাংলালিংকের সিনিয়র সেলস সুপারভাইজার মো. আরিফুর রহমান জানান সিমকার্ড নিবন্ধন করতে কোন টাকা লাগে না। যদি কেউ নিয়ে থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে প্রয়োজনে তার রিটেইলার বাদ করা হবে।


গ্রামীণফোনের মাদারীপুরের টেরিটর ম্যানেজার (টি এম) মোবাইলে ফোনে তিনি বলেন টাকা নেয়ার কোন সুযোগ নেই। এবং যারা নিচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব। কিছুক্ষন পর কাজল নামে একজন ফোন দিয়ে সাংবাদিকে বলে আপনী কেন তাকে হুমকি দিলেন আপনার কোন অভিযোগ থাকলে ১২১ হটলাইনে অভিযোগ করেন। আরও হুমকিমূলক অনেক কথা বলে। পরে জানা যায় কাজল নামে ঐব্যাক্তি গ্রামিনফোনের মাদারীপুর ডিসট্রিভিশনের সুপারভাইজার। তবে মোবাইলে কথা বলার কিছুদিন পরও আবারও টাকা নেয়ার অভিযোগ পাওয়া যায়। 

মেহেদী হাসান সোহাগ
মাদারীপুর
 

ONN TV
payoneer
নিউজ আর্কাইভ
সর্বাধিক পঠিত
সখিপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ২ ব্যাপী ক্রীড়া ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান
ক্রীড়া ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান

সাতক্ষীরা  প্রতিনিধি: সখিপুর ইউনিয়নের সখিপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ২ দিনব্যাপী ক্রীড়া, কুইজ, রচনা প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বে-সরকারি প্রতিষ্ঠা

জেলা পরিষদের সদস্য প্রাথী শাপলার গনসংযোগ
জেলা পরিষদের সদস্য প্রাথী শাপলার গনসংযোগ

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও ইউপি চেয়ারম্যানদের সাথে গনসংযোগ করেছেন জেলা পরিষদের সদস্য প্রার্থী সোনিয়া পারভীন শাপলা। সোমবার

দেবহাটা রিপোর্টাস ক্লাবের নবগত নির্বাহী অফিসারের সাথে ফুলের শুভেচ্ছা ও মতবিনিময়
 শুভেচ্ছা ও মতবিনিময়

দেবহাটা প্রতিনিধি: দেবহাটা উপজেলা নবগত নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে ফুলের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন দেবহাটা রিপোর্টাস ক্লাবের নের্তৃবৃন্দরা। সোমবার দুপুরে নির

দেবহাটায় ছাত্রলীগের ৪দলীয় ক্রিকেট টুর্ণামেন্ট
৪দলীয় ক্রিকেট টুর্ণামেন্ট

মীর খায়রুল আলম, সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: দেবহাটায় ছাত্রলীগের উদ্যেগে ৪দলীয় ক্রিকেট টুর্ণামেন্ট অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকালে উপজেলার গোপাখালি মাঠে দে

দেবহাটায় ইএনও’র বিভিন্ন প্রকল্প পরিদর্শন
দেবহাটায় ইএনও’র বিভিন্ন প্রকল্প পরিদর্শন

মীর খায়রুল আলম:: দেবহাটা উপজেলাকে মডেল করতে ছুটির দিনে উপজেলার বিভিন্ন প্রকল্পের কাজ পরিদর্শন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাফিজ আল-আসাদ। শুক্রবা

শিরোনাম